২১শে আগষ্ট গ্রেনেড হামলায়: নিহত শহিদদের প্রতি রইল ইউসুফ মেম্বারের শ্রদ্ধাঞ্জলী


স্টাফ রিপোর্টারঃ শোকাবহ ২১শে আগস্ট। বন্দর উপজেলা আ’লীগ সভাপতি ও বন্দর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান বীরমুক্তিযোদ্ধা এমএ রশিদের পক্ষ থেকে সকল শহিদদেও প্রতি রইল বিন¤্র শ্রদ্ধা। ২০০৪ সালের এই দিনে ঢাকার বঙ্গবন্ধু এভিনিউয়ে গ্রেনেড হামলা করে ২৪জন মানুষের জীবন কেড়ে নেয়া হয়। এ দিবসটি কলংকের,শোকের ও বেদনার।

এ শোক দিবস উপলক্ষ্যে বন্দর উপজেলা আ’লীগনেতা ও বন্দর ইউনিয়ণ পরিষদের ১নং ওয়ার্ডের মেম্বার ইফসুফ আলীর এক বিবৃতিতে জানান ‘২১শে আগস্ট বাংলাদেশের ইতিহাসে এক কলংকজনক দিন। সেদিন ঢাকার বঙ্গবন্ধু এভিনিউয়ে আওয়ামী লীগের চলমান সভায় গ্রেনেড হামলা করে দলের সভানেত্রী ও বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে হত্যার পরিকল্পনা করা হয়েছিল। সেই ভয়ানক গ্রেনেড হামলায় জননেত্রী শেখ হাসিনা বেঁচে গেলেও সেদিন ২৪টি তাজা প্রাণ ঝড়ে পড়ে। ঘাতকদের বোমার আঘাতে সেদিন মহিলা আ’লীগের সভানেত্রী ও সাবেক রাষ্ট্র্রপতি জিল্লুর রহমানের সহধর্মিনী আইভী রহমানসহ আ’লীগের বিভিন্ন পর্যায়ের মোট ২৪জন নেতা কর্মী নিহত ও পাঁচ শতাধীক নেতা-কর্মী আহত হন। গ্রেনেড হামলায় নিহত শহীদদের ১৫তম শাহাদাৎ বার্ষিকীতে আমি সরকারের কাছে জোড়ালো অনুরোধ রাখব,এ নৃশংস হত্যাকান্ডের সাথে জড়িতদেরকে কঠিন শাস্তি দিয়ে জাতিকে কলংকমুক্ত করা হোক।

এই শোকের মাসে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান, তাঁর পরিবারের নিহত সকল শহীদ সদস্য ও ২০০৪ সালের ২১শে আগস্টে গ্রেনেড হামলায় নিহত সকল শহীদদের আত্মার মাগফিরাত কামনা করছি’।

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

%d bloggers like this: