সোনারগাঁয়ে রুবেল হত্যার ঘটনায় থানায় মামলা

সোনারগাঁ (নিউজ বন্দর ২৪) : সোনারগাঁয়ে রহস্যজনকভাবে  রুবেল হোসেন (২৫) নামে এক মাদক ব্যবসায়ী হত্যার ঘটনায় মামলা হয়েছে। শনিবার (১১ মে) নিহতের মা আনোয়ারা বেগম বাদি হয়ে ওই কারখানার ৩ কর্মচারীসহ ৭ জনের নাম উল্লেখ করে একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন।
গত শুক্রবার সকালে উপজেলার মহজমপুর যুগিপাড়া গ্রামের পাশে একটি পরিত্যক্ত ইনফিনিটিভ ডাটা পাওয়ার লিমিটেড কারখানার ভেতর থেকে মাদক ব্যবসায়ীর লাশ উদ্ধার করে পুলিশ।
সোনারগাঁ থানায় দায়ের করা মামলায় নিহত রুবেলের মা আনোয়ারা বেগম উল্লেখ করেন, উপজেলার জামপুর ইউনিয়নের মহজমপুর উত্তরকাজী পাড়া গ্রামের আনোয়ার হোসেন ওরফে পুইক্কার ছেলে রুবেল হোসেন। গত ৯ মে রাতে একটি অজ্ঞাত নাম্বার থেকে ফোন দিয়ে বাড়ি থেকে ডেকে নিয়ে যায় তার ছেলে রুবেলকে। ওই রাতে রুবেল আর বাড়ি ফেরেনি। পরের দিন শুক্রবার সকালে যুগিপাড়া গ্রামের ইনফিনিটিভ ডাটা পাওয়ার লিমিটেড নামের একটি পরিত্যক্ত কারখানার ভেতরে রুবেলের লাশ দেখতে পেয়ে পুলিশে খবর দেয়। পুলিশ লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য নারায়ণগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালের মর্গে প্রেরণ করে।
নিহতের মা আনোয়ারা বেগম আরো উল্লেখ করেন, তার ছেলে রুবেলের সঙ্গে এলাকার কিছু যুবকের পূর্ব শত্রুতা ছিল। তারাই তাকে হত্যা করে লাশ গুম করার উদ্দেশ্যে পরিত্যক্ত কারখানার ভেতরে ফেলে রেখে পালিয়ে যায়। এ ঘটনায় ইনফিনিটিভ ডাটা পাওয়ার লিমিটেডের কর্মচারী চাঁন মিয়া, মোজাম্মেল হোসেন, আজম আলী, আফজল হোসেন, মাসুম মিয়া, রমজান মিয়া ও শরীফের নাম উল্লেখ করে একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন।
এলাকাবাসীর অভিযোগ, নিহত রুবেল মাদক ব্যবসায়ী ও একজন চিহ্নিত চোর। ওই ফ্যাক্টুরিতে চুরি করতে গিয়ে ধরা পড়ে ফ্যাক্টুরির নিরাপত্তাকর্মীদের মারধরে রুবেল মারা যেতে পারে বলে ধারনা করা হচ্ছে।
সোনারগাঁ থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) হেলাল উদ্দিন জানান, যুবকের লাশ উদ্ধারের ঘটনায় নিহতের মা আনোয়ারা বেগম বাদি হয়ে ৭ জনের নাম উল্লেখ করে একটি মামলা করেছেন। মামলাটি তদন্ত চলছে।

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

%d bloggers like this: