রূপগঞ্জে গৃহবধূকে ইট দিয়ে থেতলে দিলো শ্বশুর বাড়ির লোকজনেরা

রূপগঞ্জ প্রতিনিধি ঃ নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জ পারিবারিক কলহের জের ধরে শশুর বাড়ির লোকজন রানী বেগম নামে এক গৃহবধূকে ইট দিয়ে শরীর থেতলে দিয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। বুধবার সকালে উপজেলার আমলাবো এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। গৃহবধূ রানী বেগম উপজেলার বলাইখা এলাকার আব্দুর নূরে মেয়ে।
গৃহবধূর বাবা আব্দুর নূর জানান, ৮ বছর আগে উপজেলার বলাইখা এলাকার শরাফতুল্লাহ ছেলে মোসা মিয়ার সঙ্গে বিয়ে হয়। বিয়ের পর থেকেই শশুর বাড়ির লোকজনের সঙ্গে রানী বেগম ও স্বামী মোসা মিয়ার বিভিন্ন কলহ লেগেই থাকতো। বুধবার সকালে মোসা মিয়ার ভাই শহীদ, হাবিবুল্লাহ, বোন আমেনা আক্তার, শিরিনা, রিনা আক্তারের সঙ্গে গৃহবধূ রানী বেগমের পারিবারিক বিষয় নিয়ে তর্কবিতর্ক হয়। তর্কবিতর্কের এক পর্যায়ে শশুর বাড়ির লোকজন গৃহবধূ রানী বেগমের শরীরের বিভিন্ন স্থানে ইট দিয়ে থেতলে জখম করেন। তাদের ডাক-চিৎকারে আশপাশের লোকজন এগিয়ে আসলে শশুর বাড়ি লোকজন তাকে ফেলে তাদের ঘরে চলে যায়। পরে স্থানীয়রা রানী বেগমকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করান।
রূপগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মাহমুদুল হাসান জানান, এ ধরনের ঘটনার অভিযোগ পাইনি। অভিযোগ পেলে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

%d bloggers like this: