বন্দরে আল-আমিন মসজিদ কমিটির সভাপতির বিরোদ্ধে মিথ্যা মামলার প্রতিবাদে সভা

স্টাফ রিপোর্টার(নিউজ বন্দর ২৪) : বন্দর উপজেলার আল আমিন আবাসিক জামে মসজিদের সভাপতি মোঃ মোজাম্মেল হকের বিরোদ্ধে মিথ্যা মামলা প্রত্যাহার ও মামলার হোতা মাদক সেবনকারী এবং সুদখোর সুজন করিমের বিরোদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহনের দাবীতে প্রতিবাদ সভা করেছে মসজিদ কমিটি।

শুক্রবার (২৮ জুন) বাদ জুম্মা আমিন আবাসিক এলাকা জনকল্যাণ সমিতি কার্যালয়ে মসজিদ কমিটির সিনিয়র সহ সভাপতি মোঃ ইব্রাহীম সরকারের সভাপতিত্বে প্রতিবাদ সভা অনুষ্ঠিত হয়।

উক্ত প্রতিবাদ সভায় বক্তারা বলেন,সাবেক কমিটির কতিপয় কয়েকজন কুচত্রী ব্যক্তি মাদক, বিক্রেতা,সেবনকারী ও সন্ত্রাসীদের আশ্রয়-প্রশয় দিয়ে বর্তমান মসজিদ কমিটির সুনাম ক্ষুন্ন করতে মাদকসেবী ও সুদখোর সুজন করিমকে দিয়ে সম্মানিত সভাপতি মোঃ মোজাম্মেল হকের বিরোদ্ধে মিথ্যা ও বানোয়াট মামলা দায়ের করে হয়রানি করছে। এই মিথ্যা মামলা প্রত্যাহার করা না হলে আমিন আবাসিক এলাকার সকল বাড়ির মালিকগন এসপির নিকট স্মারক লিপি প্রদানের ঘোষণা দেন।

ঘটনা স্বাক্ষী ও মামলার বাদী সুজন করিমের বন্ধু হুমায়ুন প্রতিবাদ সভায় বলেন, হাসিবের সাথে সুজন করিমের বিরোধ ছিল। কথা কাটাকাটির সময় হাসিব সুজন করিমকে চড় মারে। এতে মামলা করতে চায় সুজন করিম। তার বন্ধুরা ও বন্দর থানা ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক খান মাসুদ মীমাংসা করে দেন। মামলা করতে নিষেধ করায় সুজন করিম বলে আমি মইরা সবাইকে ফাসাঁমু বলে ফেইসবুকে স্ট্যাটাস দেয় পরে সেই স্ট্যাটাস প্রত্যাহার করে নেয়। মামলায় মসজিদ কমিটির সভাপতি মোজাম্মেল হক ও তার শিশু পুত্রকে আসামী করা হলেও তারা ঘটনার সময় উপস্থিত ছিলেন না ও জানেননা বলে সভায় উল্লেখ করেন হুমায়ুন।

খান মাসুদের বিচার না মেনে মাদকাসক্ত সুজন করিম গত বুধবার দুপুর ১টায় বাসায় ফিরে ৪০টি ঘুমের ট্যাবলেট সেবন করে। খবর পেয়ে তার বন্ধু হুমায়ুন ও স্বজনরা আশংকাজনক অবস্থায় উদ্ধার করে প্রথমে খানপুর হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য নিয়ে যায়। সেখান থেকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়।

মসজিদ কমিটির সাধারন সম্পাদক লুৎফর রহমান বলেন,আমিন আবাসিক এলাকায় শান্তি বিনষ্ট করে কাউকে ছাড় দেয়া হবে না। এমনকি কোন মাদক ব্যবসায়ী,সেবনকারী ও শেল্টার দাতাদেরকে থাকতে দেয়া হবেনা। এজন্য আমরা পুলিশ সুপারের হস্তক্ষেপ কামনা করবো।

প্রতিবাদ সভায় উপস্থিত ছিলেন মসজিদ কমিটির সহ-সভাপতি আশু খান,যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহাবুবুর রশিদ,সাংগঠনিক সম্পাদক গোলাম মোহাম্মদ মিল্টন,আলফাজ আলী,আবু মুছা,কবির হোসেন,আলমগীর হোসেন,ইউসুফ আলী,মোঃ মিলন মিয়া,হান্নান খান সহ বিভিন্ন বাড়ির মালিকগন।

প্রতিবাদ সভা শেষে মসজিদ কমিটির নেতৃবৃন্দ ও বাড়ির মালিক গন বন্দর থানা অফিসার ইনচার্জের সাথে সাক্ষাৎ করেন।

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

%d bloggers like this: