বন্দরে ৪র্থতলা বিল্ডিংয়ের ছাদ থেকে পড়ে রংমিস্ত্রি নিহত


স্টাফ রিপোর্টার(নিউজ বন্দর ২৪) : বন্দরে নিরাপত্তা বেষ্টনী না থাকায় কর্মরত অবস্থায় ৪লা ভবনের ছাদ থেকে পড়ে গিয়ে বিদ্যুতারিত হয়ে রং মিস্ত্রি শুক্কুর মোল্লা(৫৫) নিহত হয়েছে। রবিবার ২১এপ্রিল সকাল ৮টায় পুরান বন্দর এসএস শাহ রোড এলাকায় এ দূর্ঘটনাটি ঘটে।

নিহত রং মিস্ত্রি শুক্কুর মোল্লা শরিয়তপুর জেলার গোসাইর ঘাট থানাধীণ ছয়গাও গ্রামের মকবুল কবিরাজের ছেলে ও বন্দর ছালে নগর এলাকার মালেক শিকদারের ভাই।

জানা গেছে,বন্দর ইউনিয়নস্থ পুরান বন্দর সরদার বাড়ীর মৃত সরাফত আলী মিয়ার ছেলে মোঃ ছালে আহাম্মেদের ৪র্থতলা বিল্ডিংয়ের ছাদের বাউন্ডারী দেয়ালের রংঙ্গের কাজ করছিল ছালেনগর এলাকার রংমিস্ত্রি মুজিবুর মিয়া,মতিন,শুক্কুর মোল্লাসহ ৩/৪জন রংমিস্ত্রি। ৪তলা বিল্ডিংয়ের ছাদের বাউন্ডারী বাইরে শূন্যে কোন নিরাপত্তা বেষ্টনী না দেয়ায় বাঁশের কঞ্চি সরাতে গিয়ে হটাৎ ফসকে গিয়ে ছাদ থেকে পড়ে গিয়ে রং মিস্ত্রি শুক্কুর মোল্লা বিদ্যুতের মোটা তারের সাথে জড়িয়ে বিদ্যুতাড়িত হয়ে নিহত হয়েছে। খবর পেয়ে বন্দর থানার এসআই মোহাম্মদ আলী ঘটনাস্থলে এসে লাশ উদ্ধার করে নারায়ণগঞ্জ জেনারেল হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করেছে।

এলাকাবাসি জানিয়েছে,পুরান বন্দর এলাকার সরদার বাড়ী ৪তলা বিল্ডিংয়ের ছাদের উপরে উঠে রং মিস্ত্রিরা খুবই অসাবধাণতাবসত কাজ করছিল। ছাদের বাউন্ডারীর বাইরে শূণ্যে কোন রকম নিরপত্তা বেষ্টনী কিংবা মাঁচা ছিলনা। যার কারনে প্রান হাড়াতে হল নিরিহ রংমিস্ত্রি শুক্কুর মোল্লাকে। তার ৪টি সন্তান রয়েছে। এখন কে দেখবে তার সংসার। এ দূর্ঘটনার জন্য বিল্ডিংয়ের মালিক ছালে আহাম্মেই দায়ী। তার অসর্তকতার কারনেই এমন দূর্ঘটনাটি ঘটেছে।

এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত বন্দর থানায় এখনও কোন মামলা হয় নাই।

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

%d bloggers like this: