বন্দরে ২ গার্মেন্টসকর্মী গনধর্ষণের শিকার,গ্রেফতার-৬


স্টাফ রিপোর্টার(নিউজ বন্দর ২৪) : প্রেমিকদের সাথে ঘুরতে এসে গনধর্ষনের শিকার হয়েছে ২ র্গামেন্টর্স কর্মী। গত শনিবার রাতে বন্দর উপজেলার কলাগাছিয়া ইউনিয়নস্থ সাবদী আইসতলা বিলে এ ঘটনাটি ঘটে। এলাকাবাসীর সংবাদের প্রেক্ষিতে মদনগঞ্জ ফাঁড়ী পুলিশ দ্রুত ঘটনাস্থলে এসে গনধর্ষনের শিকার ২ র্গামেন্টস কর্মীকে উদ্ধারসহ ওই সময় ৩ ধর্ষককে আটক করে। পরে আটককৃত ৩ ধর্ষকের তথ্য ভিত্তিতে পুলিশ থানার বিভিন্ন এলাকায় অভিযান চালিয়ে আরো ৩ ধর্ষককে আটক করতে সক্ষম হয়।

আটককৃতরা গনধর্ষকরা হলো বন্দর বালুর চর এলাকার নাজিম উদ্দিন মিয়ার ছেলে লম্পট রায়হান (২৩) তমরদী এলাকার আব্দুল সাত্তার মিয়ার ছেলে শাহীন (২২) একই এলাকার মোজ্জাল হকের ছেলে নিজাম (২২) ছোনখোলা এলাকার জাহাঙ্গীর মিয়ার ছেলে সুজন (২০) মীরকুন্ডি এলাকার আলাউদ্দিন মিয়ার ছেলে নাজিম উদ্দিন (২৫) ও তমরদী এলাকার ফজলু হক মিয়ার ছেলে শাাহীন (২৪)। এ ব্যাপারে ধর্ষিতা র্গামেন্টর্স কর্মী ঘটনার ওই রাতে বাদী হয়ে আটককৃত ৬ ধর্ষকসহ আরো ৪/৫ জনের নাম উল্লেখ্য করে বন্দর থানায় মামলা দায়ের করেছে।

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা তরিকুল আলম জুয়েল আটককৃত ৬ ধর্ষককে রোববার সকালে নারী ও শিশু নির্যাতন মামলায় আদালতে প্রেরণ করেছে। এ ছাড়াও ধর্ষিতা ২ র্গামেন্টর্স কর্মীকে ডাক্তারী পরিক্ষার পর ২২ ধারায় আদালতে প্রেরণ করেছে।

এ ব্যাপারে মামলার তদন্তকাারি কর্মকর্তা মদনগঞ্জ ফাঁড়ী ইন্সপেক্টর তরিকুল আলম জুয়েল সাংবাদিকদের জানান, শনিবার বিকেলে বন্দর আমিন এলাকায় বসবাসরত ২ র্গামেন্টস কর্মী তাদের ২ বন্ধুর(প্রেমিকদের) সাথে সাবদী এলাকায় ঘুরতে আসে। ঘুরা শেষে রাত সাড়ে ৯টায় অটোযোগে বাড়ীতে ফেরার সময় উল্লেখিত গনধর্ষকরা সাবদী আইসতলা এলাকায় ২ বন্ধুকে(প্রেমিকদের) বেদম পিটিয়ে ২ র্গামেন্টর্সকর্মী একটি বিলে নিয়ে ইচ্ছার বিরুদ্ধে গনধর্ষন করে। আটককৃত ৬ গনধর্ষকের মধ্যে ৫ জনকে দুপুরে নারায়ণগঞ্জ সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজেস্ট্রিট মোঃ কাউছার আলমের আদালতে ১৬৪ ধারায় জবানবন্ধী প্রদান করেছে।

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

%d bloggers like this: