বন্দরে রাস্তার পাশে মৃত ও পরিত্যক্ত গাছ অপসারনের সরকারী উদ্যোগ নেই,চলাচলে ঝুঁকি

স্টাফ রিপোর্টারঃ বন্দরের মদনপুর স্ট্যান্ড থেকে মদনপুর বাজার সহ আশেপাশের কয়েকটি ছোট বড় সংযোগ সড়কের পাশে দীর্ঘদিনের মৃত ও পরিত্যক্ত গাছ সড়ানোর ক্ষেত্রে সরকারি উদ্যোগ না থাকায় মারাত্মক ঝুঁকি নিয়ে যাত্রীসাধারণ চলাচল করছে বলে গণমাধ্যমের কাছে অভিযোগ করেছেন পথচারীরা। কতিপয় সচেতন জনসাধারণ সাংবাদিকদের কাছে হতাশা ব্যক্ত করে বলেন, রাস্তার পাশে বড় বড় গাছকে মৃত অবস্থায় দেখা যায়। কিন্তু সরকারিভাবে গাছগুলো সড়ানো হয়না। স্থানীয়রা আইনী জটিলতা হবার ঝুঁকি থাকায় গাছ নিজ দায়িত্বে সড়াতে পারেনা। প্রশাসনিকভাবে জানানো হলেও স্থানীয় প্রশাসন কোন সিদ্ধান্ত দিতে পারেনা। ফলে দীর্ঘদিন যাবৎ গাছগুলো মরে পচে যায় এবং একসময় ঝড় বা অতিবৃষ্টি আসলে গাছের ডাল ভেঙ্গে যাত্রী আহত বা নিহতের ঘটনা ঘটে। সূত্র মতে, গেল কয়েকদিন আগে মদনপুর বাজারের অদূরে এডুকেশন পার্ক কিন্ডার গার্টেনের বিপরীত পাশের একটি মৃত গাছ ঝড়ো বাতাসে ভেঙ্গে ঐ রাস্তা দিয়ে যাবার সময় কামাল হোসেন নামে এক রিক্সাচালকের মাথায় পড়লে তিনি মারাত্মকভাবে আহত হন বলে জানান। প্রায়ই এ ধরণের ঘটনার সম্মুখীন হতে হয় যাত্রীসাধারণকে, তাই এর স্থায়ী সমাধান চান পথচারীরা।

এ বিষয়ে বন্দর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা পিন্টু বেপারী জানান, মৃত গাছ সড়ানোর ক্ষেত্রে আইনের কিছু বিধান রয়েছে। সেক্ষেত্রে লিখিত আবেদন করলে আমি পরিবেশ মন্ত্রণালয়কে বিষয়টি অবহিত করবো। সেখান থেকে অনুমতি পাবার পরই রাস্তার পাশের যে কোন গাছ অপসারণ সম্ভব, তার আগে নয়।

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

%d bloggers like this: