বঙ্গবন্ধু আমাদের হিন্দু মুসলিমকে একত্রে মিলে ধর্ম পালন করতে শিখিয়ে গেছেন – বস্ত্র ও পাট মন্ত্রী

নারায়নগঞ্জে প্রশাসনিক নিরাপত্তার মাধ্যমে হিন্দু ধর্মের বিশ্ব শান্তির সবচেয়ে বড় উৎসব রথযাত্রা শুরু হয়।

বৃহস্পতিবার (৪জুলাই) বিশ্ব শান্তি ও মঙল কামনায় অগ্নিহোত্র যজ্ঞ ও রথযাত্রা উপলক্ষ্যে দুপুর সাড়ে ১টায় নারায়নগঞ্জ দেওভোগ আখড়া শ্রী শ্রী রাধা গোবিন্দ মন্দিরে আলোচনা সভা ও রথযাত্রার শুভ উদ্ভোধন অনুষ্ঠিত হয়।

আলোচনা সভায় বস্ত্র ও পাট মন্ত্রী গোলাম দস্তগীর গাজী (বীর প্রতীক) বলেন,জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান আমাদের হিন্দু মুসলিমকে একত্রে মিলে ধর্ম পালন করতে শিখিয়ে গেছেন এবং তার সময় থেকেই বাংলাদেশ ধর্ম নিরপক্ষতাভাবে বিভিন্ন উৎসব পালন করেছিলো।তিনি সব সসময় সব ধর্মকে সম্মান করে বলতেন,ধর্ম যার যার উৎসব সবার। কিন্তু পাকিস্তান সময়ে ধর্মীয় উৎসবগুলোতে বিভেদের সৃষ্টি হয়। আমার ছোটবেলায় আমার বেশির ভাগ বন্ধুই হিন্দু ছিলো তাদেরদের বিভিন্ন ধর্মীয় অনুষ্ঠনে অংশগ্রহণ করতাম। পাকিস্তান আসার পর তারাও আস্তে আস্তে ভারত চলে যায় তার কারন ছিলো পাকিস্তানিদের অত্যাচারে। দেশ স্বাধীন হবার পর বিভিন্ন ধর্মাবলম্বী তাদের উৎসব পালন করতেন স্বাধীনভাবে জাতির পিতাকে হারানোর যখন বিএনপি সরকার দায়িত্বে আসে তখন হিন্দুদের মন্দিরে তারা হামলা চালিয়ে মন্ডব ভেঙে ফেলতো।বঙ্গ কন্যা শেখ হাসিনা প্রধানমন্ত্রী হয়ে আসার পর ওই ঘটনা আর ঘটে নাই হিন্দু ধর্মাবলম্বীরা নিরাপত্তা সহকারে স্বাধীনভাবে তাদের উৎসব পালন করছে।আমরা সম্প্রদায় না হয়ে অসম্প্রদায়ী হতে হবে এতে আমাদের মাঝে শান্তি বিরাজ করবে। আমি যখন নারায়নগঞ্জ প্রথম এমপি হলাম তখন আমার এলাকায় আমি পূজা মন্ডপ পেয়েছি মাত্র ৭ টি পরে হলো ১৯টি আর এখন ৪৫ টি মন্ডপ রয়েছে আমার এলাকায়।

মন্ত্রী আরো বলেন, আমরা সব সময় বিশ্বাস করি এক এমপি অপরের এলাকায় যাবো না। এক জন অপর জনের এলাকায় গেলে আমাদের মধ্যে বিভেদ সৃষ্টি হয়। তারপরেও আপনারা আপনাদের যে কোন সমস্যা হলে আমার সাহায্যের প্রয়োজন হলে স্থানীয় এমপিদের আগে জানাবেন। তাঁদের সমর্থন থাকলে আমি নিশ্চই আপনাদের যে কোন কাজই সাহায্য করবো। আমরা চাই না যে আমাদের মধ্যে কোন জায়গাতে কোন বিভেদে হোক।

শ্রী শ্রী রাধা গোবিন্দ মন্দিরে বিশ্ব শান্তি ও মঙল কামনায় অগ্নিহোত্র যজ্ঞ ও রথযাত্রা উপলক্ষ্যে আলোচনা সভাটি মন্দিরের সভাপতি শ্রী হংষকৃষ্ণ মহারাজের সভাপতিত্বে আরো উপস্থিত ছিলেন অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক(সার্বিক)মোঃমাসুম বিল্লাহ, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (অপরাধ) আব্দুল্লাহ আল মামুন, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (গোয়েন্দা) সুভাস চন্দ্র সাহা, জেলা সুপার সুবাস ঘোষ,নারায়নগঞ্জ সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা নাহিদা বারিক,জাতীয় শ্রমিক লীগের শ্রমিক উন্নয়ন ও কল্যাণ বিষয়ক সম্পাদক কাউসার আহম্মেদ পলাশ, সি.আই.পি অমল পোদ্দার, মহানগর পূজা উদজাপন পরিষদের সাধারণ সম্পাদক শিখন সরকার, কাউন্সিলর শারমিন হাবিব বিন্নি, হিন্দু কল্যাণ ট্রাস্ট্রি পরিতোষ কান্তি সাহা,নারায়নগঞ্জ সদর মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃকামরুল ইসলাম প্রমূখ।

আলোচনা শেষে শ্রী শ্রী রাধা গোবিন্দ মন্দিরের সামনে থেকে জগনাথ দেবের রথযাত্রা ৯ দিন উৎসব উপলক্ষ্যে রথযাত্রাটি পাট ও বস্ত্র মন্ত্রী গোলাম দস্তগীর গাজী শুভ উদ্ভোধন করেন।রথযাত্রাতে রথটান,রথের মেলা,পদাবলী কির্তন,ভাগবত কথা,ধর্মীয় সঙীত,সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান,ধর্মীয় নাটক,বৈদিক নৃত্য,প্রসাদ বিতরন সহ নানা কর্মসূচীর মাধ্যমে অঅনুষ্ঠিত হবে। নারায়নগঞ্জ ২নং রেল গেইট, চাষাড়া,মেট্রোহল,কালী বাজার ঘুড়ে শ্রী শ্রী বলদেব জিউর আখড়ায় গিয়ে শেষ হয়ে।প্রতিটি মন্দিরে রথযাত্রীদের অভরথনা জানানো হয়।১২ জুলাই উল্টো রথযাত্রার মাধ্যমে রথযাত্রাটি শেষ হবে।

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

%d bloggers like this: