বঙ্গবন্ধুর আর্দশকে বুকে লালিত করে যারা তারাই বঙ্গবন্ধু প্রেমে বিশ্বাসী-প্রফেসর ফারুক

মহানগর(নিউজ বন্দর ২৪) : নারায়নগঞ্জ সরকারী গ্রন্থাগারে ঐতিহাসিক মুজিবনগর দিবস উপলক্ষ্যে মুক্তিযোদ্ধাদের নিয়ে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। মোঃ হুমায়ন কবিরের সভাপতিতে শনিবার (২৭ এপ্রিল) সকাল ১০টায় জেলা সরকারী গ্রন্থাগারের আয়োজনে মুক্তিযোদ্ধাদের নিয়ে ঐতিহাসিক মুজিবনগর দিবস উপলক্ষ্যে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।
আলোচনা সভার প্রধান অতিথি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক ডীন ফার্মেসী প্রফেসর ড.আ.ব.ম ফারুক বলেন,আজ আমি বাঙালি বলে গর্বিত আর আমি আরো বেশি সৌভাগ্যবান একজন মুক্তিযোদ্ধার সান্নিধ্যে যেতে পেরে এবং তার কথা শুনে। তার সাথে আরো ৬ জন মুক্তিযোদ্ধা আছে যারা সবসময় আর্দশে চলে। বঙ্গবন্ধুর আর্দশকে বুকে লালিত করে যারা তারাই বঙ্গবন্ধুকে ভালোবাসতে জানে আর আমাদের সকলকে ভালোবাসতে শিখতে হবে বঙ্গবন্ধুকে। বর্তমান নতুন প্রজন্ম মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস ও বঙ্গবন্ধু সম্পর্ক মুক্তিযুদ্ধ হয়ে গেলো ৪৮ বছর তারা এখনো অজ্ঞ তাদের আমাদের বাংলাদেশের ইতিহাস সম্পর্ক জানতে হবে কিভাবে পাকিস্তানী বাহিনীর বর্বরতা। উর্দু ভাষাকে রাষ্ট্র ভাষা করার জন্য পাক বাহিনী কিভাবে বাঙালীদের উপর অত্যাচার চালিয়েছিলো তা সম্পর্ক জানতে হবে। পাকিস্তান চেয়েছিলো পূর্ব বাঙালী রাষ্ট্র ভাষা উর্দু করতে কিন্তু পারেনি।আমাদের আগের প্রজন্ম থেকে বর্তমান নতুন প্রজন্মের মেধা বেশি।তাদের হাত ধরে গড়ে উঠবে ডিজিটাল বাংলাদেশ। পৃথিবীতে অনেক দেশ যুদ্ধ করে স্বাধীন হয়েছে এবং পৃথিবীতে ২০০ এর বেশি স্বাধীন রাষ্ট্র হয়েছে। গতকাল পরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন অনেক নামধারী লোক আছে যারা আওয়ামীলীককে ব্যবহার করার জন্য নামে ব্যবহার করে দলের নাম। এদের দেখিলে আমার ঘৃনা হয়।বর্তমান বাংলাদেশ উন্নয়নে এগিয়ে যাচ্ছে আগে বাংলাদেশের জিডিপি ৭.৮ আর পাকিস্তানে ৫ ৮ এবং বাংলাদেশে ফারেনহাইট পাকিস্তানে ১০ বিলিয়ন কিন্তু বাংলাদেশে ৩০ বিলিয়ন জাতিসংঘের হিসেব অন্যুায়ী । আমরা দোয়া করি এভানে বাংলাদেশ এগিয়ে যাক। আমার ঘৃনা ও লজ্জা লাগে যখন দেখি পাকিস্তানে খেলার সময় ছক্কা নেয় তখন।
আলোচনা সভার সভাপতি মোঃ হুমায়ন কবির বলেন,আমাদের প্রতিটি মানুষকে ১৯৭১ সালের মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস সম্পর্ক জানতে হবে এবং বুকের ভিতর লালিত করতে হবে।আমি আজকে সবাইকে অনুরোধ করবো সবাই মুক্তিযোদ্ধাদের সানিধ্যে গিয়ে ১৯৭১ সালের জীবন ইতিহাস সম্পর্ক জানতে হবে।সবাই বেশি করে বই পরবে।
ঐতিহাসিক মুজিবনগর দিবস উপলক্ষ্যে আলোচনা সভায় আরো উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়ের ট্রেফাদারার প্রফেসর ড.আশারাফ।

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

%d bloggers like this: