নারী জামদানী কারিগরকে ধর্ষন, আটক-১

সোনারগাঁ প্রতিনিধি : নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁ উপজেলায় বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে এক নারী জামদানী কারীগরকে ধর্ষন করার অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় ওই তরুনীর বাবা বাদি হয়ে মঙ্গলবার (০২ জুলাই) দুপুরে সোনারগাঁ থানায় ধর্ষন মামলা দায়ের করেছেন।
মামলার বিবরনীতে ওই তরুনীর বাবা উল্লেখ করেন, উপজেলা কাঁচপুর ইউনিয়নের পূর্ব বেহাকৈর এলাকায় বাসা ভাড়া নিয়ে বসবাস করে আসছিলেন। তার মেয়ে ওই এলাকার নুরুল ইসলামের বাড়িতে জামদানী শাড়ী বুনার কাজ করতো। তাদের পাশ্ববর্তী বাড়ীর ভাড়াটিয়া ও আড়াইহাজার উপজেলার নজরপুরা এলাকার শামসু মিয়ার ছেলে ইউসুফ মিয়ার তার মেয়ের সঙ্গে জামদানী শাড়ী বুনার কাজ করতো। পরে নুরুল ইসলামের সহযোগিতায় তার মেয়েকে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে ইউসুফ মিয়া কয়েক বার ধর্ষন করে। ফলে তার মেয়ে তিন মাসের অন্ত:স্বত্ত্বা হয়ে পড়লে ইউসুফ মিয়াকে বিয়ের জন্য চাপ প্রয়োগ করলে সে তালবাহানা শুরু করেন। বিষয়টি এলাকায় জানাজানি হলে নুরুল ইসলাম মিমাংসার আশ্বাস দিয়ে ধর্ষিতাকে আটক রেখে বাচ্চা নষ্ট করে ফেলে। খবর পেয়ে আহত অবস্থায় তার মেয়েকে উদ্ধার করে স্থানীয় হাসপাতালে ভর্তি করেন।
এ ঘটনায় মামলা করার পর পুলিশ অভিযান চালিয়ে ধর্ষক ইউসুফ মিয়াকে গ্রেফতার করে।
সোনারগাঁ থানার ওসি মনিরুজ্জামান জানান, ধর্ষণের ঘটনায় থানায় একটি মামলা নেওয়া হয়েছে। ধর্ষককে গ্রেফতার করা হয়েছে।

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

%d bloggers like this: