ছেলেকে না পেয়ে পিতাকে পিটিয়ে জখম

ফতুল্লা প্রতিনিধি : বড় ভাই না বলায় সন্ত্রাসী সেলিম বাহিনীর হামলায় গুরুতর আহত হয়েছে বাছেদ মিয়া।মুমুর্ষ অবস্থায় স্বজনরা উদ্ধার করে ভিক্টোরিয়া হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য নিয়ে যায়।

ঘটনাটি ঘটেছে সোমবার (৫ আগষ্ট) রাত ৯ টায় গোগনগর ইউনিয়নের সৈয়দপুর পশ্চিম পাড়া এলাকায়।

আহত মোঃ বাছেদ মিয়া হাসপাতালে সাংবাদিক দের জানান, আমার ছেলে দীন ইসলামের সাথে সৈয়দপুর পশ্চিম এলাকার চিহৃিত সন্ত্রাসী ও বখাটে সেলিমের সাথে বড় ভাই না বলার বিষয়ে কথা কাটাকাটি হয়।

রাত ৯ টায় সেলিম ও আউয়ালের নেতৃত্বে ২০/২৫ জনের সন্ত্রাসী দল বাছেদের বাড়ীতে গিয়ে দীন ইসলাম কে খোজ করতে থাকে। বাছেদ কারন জিঙ্গাসা করলে সেলিম ও আউয়াল উক্তেজিত হয়ে দীন ইসলামের বাবা বাছেদ,মা শোভা বেগমকে বেধড়ক মারধর করে।খবর পেয়ে দীন ইসলাম বাড়ীতে আসলে তাকেও মারধর করে নগদ ৩০৬০০ টাকা,একটি মোবাইল ফোন সেট যার মূল্য ৩৫০০ টাকা, ১ টি লাইট নিয়ে যায় এবং বাড়ীঘর ভাংচুর ও লুটপাট চালায়।

সেলিম ও আউয়ালের বিরুদ্ধে এর আগে বড় ভাই না বলায় অনেককে মারধর করার অভিযোগ রয়েছে। সামাজিক ভাবে বিচার শালিশ হলেও সেলিম ও আউয়াল ভাল না হয়ে দিনদিন বেপরোয়া হয়ে উঠেছে।

এ ব্যাপারে মোঃ বাছেদ বাদী হয়ে সদর মডেল থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছে।

নারায়ণগঞ্জ সদর উপজেলার দাপা ইদ্রাকপুর এলাকার মো.নুরুদ্দিন মিল্কির ছেলে ফেরিওয়ালা মনির হোসেন হত্যা মামলার কোন ক্লু বের করতে পারেনি পুলিশ বরং মামলার তদন্ত ও আসামী না ধরার ফলে পুলিশের গাফলতির চিরচেনা মুখটি ভেসে উঠেছে সর্বজনের কাছে। মনিরকে হত্যার পর তার পিতা ফতুল্লা মডেল থানায় একটি মামলা দায়ের করেন যার নং ৩৭ ( ৮/৮/১৮ইং)।

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

%d bloggers like this: