খেয়া ঘাটের ইজারা নেওয়াকে কেন্দ্র করে সংঘর্ষ,আহত-১০,গ্রেফতার-৪

রুপগঞ্জ(নিউজ বন্দর ২৪) : নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জ উপজেলার রূপগঞ্জ গ্রামের খেয়াঘাটের ইজারা নেওয়াকে কেন্দ্র করে দু’পক্ষের সংঘর্ষে অন্তত ১০ জন আহত হয়েছেন। গত রোববার সন্ধায় উপজেলার রূপগঞ্জ এলাকার আব্দুল হামিদ উচ্চ বিদ্যালয়ে এ ঘটনাটি ঘটে।

এ ঘটনায় ৪ জনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

স্থানীয় ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, রোববার বিকেলে রূপগঞ্জ উপজেলার রূপগঞ্জ গ্রামে খেয়া ঘাটের ইজারার জন্য ডাক তুলেন কাজী আব্দুল হামিদ উচ্চ বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির লোকজন। এ সময় স্থানীয় ছাত্রলীগ নেতা পিস্টন রাসেলকে ১৬ লাখ টাকায় ঘাটের ইজারা দেয়ার প্রতিশ্রুতি দেন ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি মশিউর রহমান তারেক। পরে ম্যানেজিং কমিটির লোকজন জুয়েলকে সাড়ে ২৪ লাখ টাকার বিনিময়ে খেয়াঘাটের ইজারার দায়িত্ব দেয়ার ঘোষণা দেন। কিন্তু সন্ধ্যায় সাড়ে ১৬ লাখ টাকা কমিটির লোকজনকে দিয়ে জুয়েল খেয়াঘাট বুঝে নিতে আসে। তখন পিস্টন রাসেলের পক্ষের লোকজন টাকা কম দেয়ার ব্যাপারে কমিটির লোকজনের কাছে কারণ জানতে চায়। এ সময় হঠাৎ ইয়াবা জুয়েল তাদের সাথে তর্কবিতর্কে জড়িয়ে পড়ে। একপর্যায়ে জুয়েল সাথে থাকা ছুরি দিয়ে পিস্টন রাসেলের পক্ষের আব্দুল্লাহকে আঘাত করে। এ নিয়ে উভয় পক্ষের লোকজন সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে। সংঘর্ষে জুয়েল মিয়া, সাগর, ইয়াবা জুয়েল, মামুন, দ্বীন ইসলামসহ কমপক্ষে ১০ জন আহত হয়। আহতদের মধ্যে গুরুতর আহত অবস্থায় ইয়াবা জুয়েল, আব্দুল্লাহ ও মামুনকে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

খবর পেয়ে রূপগঞ্জ থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। এ ঘটনায় রউফ, আসাদুল্লাহ, নাজির, নিপু দাসকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

রূপগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মাহমুদুল হাসান বলেন, যে পক্ষের লোকজন আহত হয়েছে সে পক্ষেরই মামলা নেওয়া হয়েছে।

এ ঘটনায় জুয়েলের স্ত্রী শারমিন আক্তার বাদী হয়ে রূপগঞ্জ থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। এ ঘটনায় রউফ, আসাদুল্লাহ, নাজির, নিপু দাসকে গ্রেফতার করা হয়।

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

%d bloggers like this: