মাদ্রাসা ছাত্রী নুসরাত জাহান রাফি হত্যার প্রতিবাদে বন্দরে মানব বন্ধণ


স্টাফ রিপোর্টার( নিউজ বন্দর ২৪) : নাগরিক কমিটি বন্দর থানা শাখার উদ্যোগে ফেনিতে মাদ্রাসা ছাত্রী নুসরাত জাহান রাফির ওপর যৌন নিপীড়নের ও কেরোসিন ঢেলে আগুনে পুড়িয়ে হত্যার প্রতিবাদে মানব বন্ধণ অনুষ্ঠিত হয়েছে। শনিবার সকাল ১১টায় বন্দর বাজারস্থ বন্দর প্রেস ক্লাবের সন্মূখে এ মানব বন্ধণ অনুষ্ঠিত হয়।

এ সময় মানব বন্ধণে বক্তরা বলেন, নরপিচাশ ওই মাদ্রাসার অধ্যক্ষ সিরাজদৌল্লা এখনও কেন বেঁচে আছে। কি দোষ করেছিল নুসরাত। আমরা আজকের মানব বন্ধনে সরকারকে বলব ওই ধর্ষক মাদ্রাসা শিক্ষককে দৃষ্টান্তমুলক শাস্তি দেয়া হোক যাতে সারা বাংলাদেশে নজীর হয়ে থাকে। এভাবে যদি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে এসব ন্যাক্কারজনক ঘটনা ঘটতে থাকে তাহলে মানুষ আস্তা হাড়িয়ে ফেলবে মাদ্রাসা শিক্ষার প্রতি।

তারা আরো বলেন,খুন-ধর্ষণ এখন নিত্যদিনের ঘটনা হয়ে দাঁড়িয়েছে। ঘটনা ঘটার পর বিচার না হওয়া বা বিচারে দীর্ঘসূত্রতার কারণে অপরাধীরা আরও বেপরোয়া উঠছে। তারা এই হত্যার সুষ্ঠু তদন্ত ও দোষীদের সর্বোচ্চ সাজার দাবি জানান।

বন্দর প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি জিএম মাসুদের সভাপতিত্বে মানব বন্ধনে অংশ নেন নাগরিক কমিটির সহসভাপতি কবি রইস মুকুল,সাধারন সম্পাদক একেএম শাহআলম,সাংগঠনিক সম্পাদক মিয়া শহিদ,পাইওনিয়ার কিন্ডারগার্টেনের অধ্যক্ষ এড. মাহফুজা বেগম,বন্দর গার্লস স্কুল’র শিক্ষিকা অনুকুল দেবনাথ,নাগরিক কমিটির মহিলা বিষয়ক সম্পাদিকা,কবি মাকসুদা ইয়াসমিন,এড.পিন্টু খানসহ বিভিন্ন শ্রেনী পেশার মানুষ।

উল্লেখ্য,৬ এপ্রিল ফেনীর সোনাগাজী ইসলামিয়া ফাজিল মাদ্রাসার ছাত্রী নুসরাত জাহান রাফি পরীক্ষা দিতে গেলে দুর্বৃত্তরা তাঁর গায়ে আগুন লাগিয়ে দেয়। গুরুতর আহত অবস্থায় ওই দিন রাতে তাঁকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হয়। গতকাল বুধবার রাত সাড়ে নয়টার দিকে নুসরাত জাহান রাফি মারা যান।

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

%d bloggers like this: