বন্দরে হাজী আব্দুল মালেক স্কুলের কো-অপ্ট সদস্যকে পিটিয়ে জখম, থানায় মামলা

স্টাফ রিপোর্টার(নিউজ বন্দর ২৪) : পরিক্ষায় ফেল করার কারনে ১০ম শ্রেণীতে উঠতে ব্যার্থ হয়ে বিদ্যালয়ের কো-অপ্ট সদস্য মশিউর রহমান (৩৫)কে বেদম পিটিয়ে হাতের ঘড়ি খুলে রেখেছে শিক্ষার্থী ও তার পিতা। গত ১৪ জুন সন্ধ্যা সাড়ে ৬টায় বন্দর থানার নবীগঞ্জ বাসস্ট্যান্ড এলাকায় এ ঘটনাটি ঘটে। এ ব্যাপারে হাজী আব্দুল মালেক উচ্চ বিদ্যালয়ের কো-অপ্ট সদস্য বাদী হয়ে সন্ত্রাসী শিক্ষার্থী ও তার পিতাকে আসামী করে বন্দর থানায় একটি মামলা দায়ের করেন।

জানা গেছে, বন্দর উপজেলার নবীগঞ্জ বাসস্ট্যান্ড এলাকার নাসির মিয়ার ছেলে হাজী আব্দুল মালেক উচ্চ বিদ্যালয়ের ছাত্র খায়রুল (১৯) নবম শ্রেণীতে লেখাপড়া করত। গত ১৮ মাস পূর্বে স্কুল ছাত্র খাইরুল বার্ষিক পরিক্ষায় ৬ বিষয় ফেল করে। ফেল করার কারনে উক্ত বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটি নেতৃবৃন্দ খাইরুলকে ১০ শ্রেণীতে ভর্তি না করার সিদ্ধান্ত নেয়। এ ঘটনায় স্কুল ছাত্র খাইরুল ও তার পিতা নাসির মিয়া ক্ষিপ্ত হয়ে গত ১৪ জুন সন্ধায় নবীগঞ্জ বাস সন্ট্যান্ড এলাকায় বিদ্যালয়ের কো-অপ্ট সদস্য মশিউর রহমানকে বেদম পিটিয়ে জখম করে নগদ ৫০ হাজার টাকা ও ১টি হাত ঘড়ি ছিনিয়ে নেয়। এ ব্যাপারে বন্দর থানায় মামলা দায়ের করা হলে এ রিপোৃট লেখা পর্যন্ত সন্ত্রাসী স্কুল ছাত্র ও ততার পিতা নাসিরকে গ্রেপ্তারের সংবাদ জানাতে পারেনি পুলিশ।

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

%d bloggers like this: