বন্দরের কুড়িপাড়ায় দুর্ধর্ষ চুরি,৭ লক্ষাধিক টাকা ও ১০ ভরি স্বর্ণালংকার লুট



স্টাফ রিপোর্টার(নিউজ বন্দর ২৪) :  নাসিক ২৭নং ওয়ার্ডের (বন্দরের) কুড়িপাড়ায় দুর্ধর্ষ চুরির ঘটনা ঘটেছে। চোরদল তালা ভেঙ্গে ঘরে ঢুকে আলমারীর লক ভাংচুর করে আলমারীতে থাকা নগদ ৭ লক্ষ ৪২ হাজার টাকা এবং ৪ লক্ষ ৫০ হাজার টাকা মূল্যের ১০ ভরি স্বর্ণালংকার লুট করে নিয়ে যায়। নাসিক ২৭নং ওয়ার্ডের (বন্দরের) কুড়িপাড়ায় ১০ জুন ২০১৯ সোমবার আনুমানিক সন্ধ্যা থেকে রাত ১০ টার মধ্যে স্থানীয় ব্যবসায়ী আব্দুল হাইয়ের বাড়ীতে ঘটনাটি ঘটেছে বলে আব্দুল হাই বাদী হয়ে ১১ জুন ২০১৯ মঙ্গলবার সকালে বন্দর থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন। লিখিত অভিযোগ ও ভূক্তভোগীদের সাথে কথা বলে জানা যায়, আব্দুল হাই মুদি মালের পাইকারী ব্যবসায়ী। তিনি স্থানীয় কুড়িপাড়া চৌরাস্তায় ব্যবসা করেন। ঘটনার দিন দুপুর ২ঃ৩০ মিনিটের সময় তিনি রুমের দরজা জানালা বন্ধ করে এবং দরজায় তালাবদ্ধ করে দোকানে চলে যান। একই দিনে রাত ১০ঃ১৫ মিনিটের সময় বাড়ীতে ফিরলে তিনি রুমের দরজার লক খোলা দেখতে পান এবং আশেপাশের লোকজনকে ডেকে রুমে প্রবেশ করার সময় রুমের ভিতরের দরজার তালা কাটা, রুমের ভিতরে থাকা স্টিলের আলমারীর উপরের লক ভাঙ্গা এবং বিভিন্ন মালামাল খাটে ছড়িয়ে ছিটিয়ে অবস্থায় দেখতে পান। তার পাশাপাশি আলমারীর ভিতরের সিন্দুক ভেঙ্গে সিন্দুকে থাকা নগদ ৭ লক্ষ ৪২ হাজার টাকা এবং ৪ লক্ষ ৫০ হাজার টাকা মূল্যের ১০ ভরি স্বর্ণালংকার চোরদল চুরি করে নিয়ে গেছে মর্মে অভিযোগে উল্লেখ করা হয়। ভূক্তভোগীরা আরও জানান, একটি সংঘবদ্ধ চোরদল পূর্বপরিকল্পিতভাবে এ চুরির ঘটনা ঘটিয়েছে বলে আমরা মনে করি। তারা আমাদের চলাফেরা এবং আমাদের সমস্ত বিষয়ের উপর নজর রাখছিলো। বাড়ীতে না থাকায় তারা কৌশলে এ চুরির ঘটনা ঘটিয়েছে। আমরা প্রশাসনিক হস্তক্ষেপ ও সহায়তা কামনা করছি।

এ বিষয়ে বন্দর থানার ওসি রফিকুল ইসলাম জানান, অভিযোগ পেয়েছি। ধামগড় ফাঁড়ির ইনচার্জকে দায়িত্ব দেয়া হয়েছে। চোরদের ধরতে সর্বাত্মক প্রচেষ্টা চালানো হবে।

ধামগড় ফাঁড়ির ইনচার্জ ইশতিয়াক আশফাক রাসেল জানান, ঘটনাস্থল পরিদর্শণ করেছি এবং চোরদের ধরতে আমাদের প্রচেষ্টা অব্যাহত আছে।

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

%d bloggers like this: