ফতুল্লার ভূইগড়ে নারীসহ ৬জনকে পিটিয়ে জখম,থানায় অভিযোগ


স্টাফ রিপোটার(নিউজ বন্দর ২৪) : তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে ফতুল্লার পূর্ব ভূইগড় এলাকায় এক নারীসহ ৬ জনের উপর লাঠি ও দেশীয় অস্ত্র দ্বারা হামলা চালিয়েছে স্থানীয় আদম ব্যবসায়ী ফারুক ও তাঁর পরিবারের লোকজন। এতে রোমান (২২), নাজিম উদ্দিন (৩২), লিয়ন (৩৫), হুমায়ুন (৪২), সুরুজ মিয়া (৫৫) ও লায়লা বেগম (৩০) গুরুতর আহত হয়েছেন। আহতদের দুইজন নারায়ণগঞ্জ খাঁনপুর ৩০০ শয্যা বিশিষ্ট হাসপাতালে এবং বাকীরা স্থানীয় হাসপাতালে চিকিৎসা নিয়েছেন। এ বিষয়ে ভূক্তভোগীদের পক্ষে নাজিম উদ্দিন ফতুল্লা থানায় লিখিত অভিযোগ জানিয়েছেন।

সুরুজ মিয়া জানান, শবে বরাতের পরের দিন জানালা দিয়ে বাইরে টিস্যু পেপার ফেলাকে কেন্দ্র করে প্রতিপক্ষরা আমাদের বিভিন্ন অশ্লিল ভাষায় গালমন্দ করে। শনিবার দুপুরে পুণরায় তাঁরা ঈর্ষান্বিত হয়ে আমাদের গালমন্দ করতে থাকে। এর প্রতিবাদ জানালে আদম ব্যবসায়ী ফারুক, তাঁর পিতা ফিরোজ মিয়া, রমিজ উদ্দিন এবং তুহিন মিলে লাঠি, লোহার শাবল ও রড দিয়ে আমাদের উপর অতর্কিত হামলা করে। এতে আমরা গুরুতর জখম হই। এছাড়া তারা আমাদের ঘরেও ভাঙচুর করে ক্ষতি সাধন করে।
এদিকে স্থানীয়দের সাথে কথা বলে জানা গেছে, ভূক্তভোগী সুরুজ মিয়া ও আদম ব্যবসায়ী ফারুক সম্পর্কে চাচা-ভাতীজা। সুরুজ মিয়ার কোন ছেলে সন্তান না থাকায় প্রায় সময়ই ভাতীজা ফারুক ও তাঁর পরিবার সামান্য বিষয়কে কেন্দ্র করে সুরুজ মিয়ার পরিবারের উপর নির্যাতন করে থাকে।
এ বিষয়ে ফতুল্লা থানার এএসআই আব্দুল বারেক বলেন, আমরা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে প্রতিপক্ষের হামলা ও ভাঙচুরের সত্যতা পেয়েছি। এ বিষয়ে আইনি কর্যক্রম প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

%d bloggers like this: