প্রকৃত মানুষ হতে হলে মনুষ্যত্ব রপ্ত করতে হয় – বিদায়ী ডিসি

মহানগর(নিউজ বন্দর ২৪) :বিদায়ী জেলা প্রশাসক রাব্বী মিয়ার সম্মানে নারায়নগঞ্জ জেলা পরিষদ সংবর্ধনা অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।
রবিবার (২৩জুন) নারায়নগঞ্জ জেলা পরিষদের কনফারেন্স রুমে বিদায়ী জেলা প্রশাসক রাব্বী মিয়ার সম্মানে নারায়নগঞ্জ জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আলহাজ্ব মোঃ আনোয়ার হোসেনের সভাপতিত্বে দুপুর সাড়ে ১২টায় সংবর্ধনা অনুষ্ঠিত হয়।
অনুষ্ঠানে বিদায়ী জেলা প্রশাসক রাব্বী মিয়া বলেন,আমি নারায়নগঞ্জবাসীর প্রতি কৃতজ্ঞ। তারা আমায় ভালোবাসে এবং আমাকে সম্মান করে।এই সম্মান এমনেই আসেনি আমার কর্মের জন্য এসেছে। আমি সন্তুষ্ট আপনাদের দোয়াই আমি পদোন্নতি পেয়েছি। আমি মাননীয় সরকারের প্রতিনিধি হিসেবে কাজ করতে পারবো। আমি নানারায়নগঞ্জ জেলার চেয়ারম্যানকে সম্মান করি কারন আমিও একজন জেলা প্রশাসক। সবসময় মনে রাখবেন আপনার পরিচিতজন আপনার সম্পদ। সম্পদের পিছুনে ছুটবেন আপনার সন্তানদের সম্পদ ভেবে। তাদের মানুষের মত মানুষ করবেন তাহলে তারাই আপনার সম্পদ হবে। আমার বাবা-মার কাছে আমি এখন সম্পদে রুপান্তরিত হয়েছি। আপনার প্রিয় মানুষগুলা,বন্ধুবান্ধব ও শৈশবকে সম্পদ হিসেবে গড়ে তুলেন। আরেকটা কথা আমি সব সময় বলি ব্যথা হৃদয়ে মুখে হাসি রেখো। ব্যথাটা অন্য কারো সাথে শেয়ার করবেন না তাহলে তা একদিন শত্রুতে পরিনত হয়ে মহা আকারে ধারন করবে। জীবনকে সবসময় আনক্লিন বেম্ব’র মত গড়ে তোলেন। কারন জীবনে ব্যথা আসবেই। বাঁধা বিপত্তি উৎরাতে পারলেই জীবনে উন্নতি করতে পারবেন। তাই নিজেকে কখনো ক্লিন বেম্বর মত বানাবেন না তাহলে ক্লিন বেম্বতে উঠতে গেলে মাঝ পথ গিয়ে পিছলে পরে যাবেন। ব্যাথাকে মনে করবেন সৌভাগ্য। বাংলাদেশে অনেক সরকারি কর্মকর্তা ও ৬৪ জেলায় ডিসি আছেন তাদের মধ্যে ৬৩ জন ডিসির সাথে আপনারা সরাসরি কাজ করেন নাই শুধু আমার সাথেই প্রত্যক্ষভাবে কাজ করেছেন।পঞ্চগড়ের ডিসি যদি বড় কোন পদে কাজ করেন তখন আপনাদের মন টানবে না কিন্তু আমি যদি কোন বড় পদে কাজ করি তখন আপনারাই আমার কাছে যেতে না পারলেও গৌরবে বলবেন আরে ইনি তো আমাদের জেলা প্রশাসক ছিলো। আমি সবসময় একটা কথা বলি কর্মে মানুষকে বড় করে।আপনারা জানেন পশু জন্ম দিলে তার ঘরে পশুই হয় কিন্তু মানুষ জন্ম দিলে মানুষের সন্তান মানুষ হয় না।তাকে গড়ে তুলতে হয়। প্রকৃত মানুষ হতে হলে মনুষ্যত্ব রপ্ত করতে হয়।শেষ একটা কথা বলি আপনার স্ত্রীকে সম্মান করবেন। মৃত্যর পর যদি স্ত্রীকে বেহেশতে যেতে স্বামীর সার্টিফিকেট লাগে তাহলে আমি পৃথিবীতে তাকে সার্টিফিকেট দিয়ে দিয়েছি যাতে আমার স্ত্রী বেহেশতে যেতে পারে। আমার ভালো লেগেছে চেয়ারম্যান সাহেবের সহধর্মিণী সহ আমায় সংবর্ধনা জানাচ্ছে।
নারায়নগঞ্জ জেলার বিদায়ী জেলা প্রশাসককে সংবর্ধনা জানাতে নারায়নগঞ্জ জেলা পরিষদে আরো উপস্থিত ছিলেন নারায়নগঞ্জ জেলা পরিষদের চেয়ারম্যানের সহধর্মিণী, নারায়নগঞ্জ জেলা পরিষদের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা সুব্রত পাল,জেলা পরিষদের সদস্য সিরাজুল ইসলাম,রোমান,মাসুম হোসেন,মোস্তফা,এপিপি নূর জাহান প্রমুখ।

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

%d bloggers like this: