চিরকুট লিখে ঢাকা সিটি কলেজের শিক্ষার্থীর নদীতে ঝাঁপ দিয়ে আত্নহত্যা

নিখোঁজের ৩দিন পর ঢাকা সিটি কলেজের ২য় বর্ষের শিক্ষার্থী সাজিদুর রহমান ওরফে জুদান (২০) এর মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। বুধবার ৩জুন বিকেল ৫টায় কলাগাছিয়া ইউনিয়নস্থ ধলেশ^রী শিতলক্ষা নদীর মোহনা থেকে লাশ উদ্ধার করা হয়।

নিহত কলেজ ছাত্র সাজিদুর রহহমান জুদান ঢাকা মোহাম্মদপুর থানার বাছিলা এলাকার মজিবর রহমানের ছেলে।

এ ব্যাপারে বুধবার রাতে নিহতের মামা মেহেদী হাসান ফয়সাল বাদী হয়ে বন্দর থানায় একটি অপমৃত্যু মামলা দায়ের করেন।

থানা সুত্রে জানা গেছে,গত ৩০ জুন ঢাকা মোহাম্মদ নিজ বাড়ী হতে কলেজ ছাত্র সাজিদুর রহমান ওরফে জুদান বের হয়। স্বজনরা বিভিন্ন স্থানে খোজাখোজি করে সন্ধান না পেয়ে গত ১লা জুলাই মোহাম্মদ পুর থানায় একটি নিখোঁজ জিডি এন্ট্রি করেন। যার নং ২৮। এরপরই তার ফেইস বুকের একটি পোষ্ট ও নিজ বাসায় রেখে যাওয়া ৪/৫ পৃষ্টার চিরকুট পাওয়া যায়। সে চিরকুটে উল্লেখ করেন,“আমার মৃত্যুর জন্য কেউ দায়ী নয়,আমার মৃত্যুর পর কেউ আমাকে খুজে পাবে না।আমি নদীতে ঝাপ দিয়ে আতœহত্যা করিব। রুবা ও জিওনের দিকে খেয়াল রাখিও। আমাকে মাফ করে দিও। আমার কাছে কেউ টাকা পয়সা পাবে না। কেউ চাইলেও দিওনা। ভাল থাক তোমরা। আল্লাহ হাফেজ।” ৩দিন পর এলাকাবাসীর সংবাদের প্রেক্ষিতে বুধবার সন্ধ্যায় বন্দর থানার উপ-পরিদর্শক আব্দুল হামিদ চরধলেরশ্বরীস্থ শাহ সিমেন্ট ফ্যাক্টরী সামনে থেকে সাজিদুর রহমানের লাশ উদ্ধার করা হয়। কলেজ ছাত্র মৃত্যুর সংবাদ শুনে নিহতের পরিবার ঘটনাস্থলে এসে লাশ সনাক্ত করে। পরে সুরত হাল রিপোর্ট শেষে একটি অপমৃত্যু মামলা দায়ের করা হয়।

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

%d bloggers like this: