আড়াইহাজারে মাদক বিক্রেতার ছুরিকাঘাতে পুলিশ সোর্স নিহত



প্রতিনিধি আড়াইহাজার: নারায়ণগঞ্জের আড়াইহাজারে মাদক বিক্রেতার ছুৃরিকাঘাতে পুলিশের সোর্স স্বপন (৩৫) নামে এক ব্যক্তি নিহত হয়েছে।
পুলিশ ও স্থানীয় প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানাগেছে, ৩০ মে বৃহস্পতিবার বিকাল ২টার দিকে উপজেলার হাইজাদী ইউনিয়নের কাহিন্দী গরীবুল্যাহশাহের মাজার সংলগ্ন স্থানে মাদক বিক্রেতা শামীমের সাথে পুলিশের সোর্স স্বপনের কথাকাটাকাটি হয়। এক পর্যায়ে স্বপন ক্ষিপ্ত হয়ে ধারালো ছোরা নিয়ে এসে স্বপনের বুকে ও পিঠে ছুরিকাঘাত করে পালিয়ে যায়। পরে স্থানীয় লোকজন স্বপনকে মারাত্মক আহত অবস্থায় উদ্ধার করে আড়াইহাজার উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসে। ৩১ মে শুক্রবার ভোর রাতে স্বপন চিকিৎসাধীন অবস্থায় হাসপাতালে মৃত্যু বরণ করেন।
নিহত স্বপন উপজেলার কাহিন্দী এলাকার মৃত রহমালীর ছেলে।
অপর দিকে ঘাতক ও মাদক বিক্রেতা শামীম উপজেলার সিংহদী এলাকার রোস্তম আলীর ছেলে বলে পুলিশ জানায়।
নিহতের ভাই মুন্ছুর আলী জানান,মাদক বিক্রেতা শামীম সহ তার কয়েকজন সহযোগী ঐ এলাকায় মাজারের আশেপাশে বসে মাদক বিক্রি ও মাদক গ্রহন করে থাকে। তার ভাই স্বপন মাদক বিক্রেতাদের বিরুদ্ধে এ ঘটনা পুলিশকে জানালে তার উপর ক্ষিপ্ত হয়ে তাকে ছুরিকাঘাতে হত্যা করেছে।
পুলিশ লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য নারায়ণগঞ্জ মর্গে প্রেরণ করেছে।
স্থানীয় লোকরা জানান,মাজার এলাকায় প্রত্যহ মাদক বিক্রি ও সেবন করে আসত একটি মহল। তাই প্রায়ই পুলিশ এ এলাকায় মাদক বিক্রেতা ও মাদক সেবীদের পাকরাও করার জন্য অভিযান চালাত। এ ঘটনার জন্য মাদক বিক্রেতারা পুলিশের সোর্স স্বপনকে সন্দেহ করত।
আড়াইহাজার উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের চিকিৎসক ডাক্তার মাহাবুব জানান,নিহত স্বপনের বুকে ও পিঠে গভীর আঘাতের কারনে অতিরিক্ত রত্তক্ষরনের ফলেই স্বপনের মৃত্যু হয়েছে।
আড়াইহাজার থানার ওসি(তদন্ত) সফিকুল ইসলাম জানান,এ ঘটনায় নিহতের ভাই মুনছুর আলী বাদী হয়ে আড়াইহাজার থানায় মামলা দায়ের করেছে। খুব দ্রুত হত্যার সাথে জড়িতদের আইনের আওতায় আনা হবে

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

%d bloggers like this: