আড়াইহাজারে দীর্ঘদিন ধরে এক কৃষকের পরিবার অবরোদ্ধ

আড়াইহাজারে দীর্ঘদিন ধরে এক কৃষকের পরিবারকে অবরোদ্ধ রাখা হয়েছে বলে খবর পাওয়া গেছে। স্থানীয় ব্রাহ্মন্দী ইউপির দিঘলদী এলাকার ৯ নং ওয়ার্ডে এ ঘটনা ঘটে।

তাদের যাতায়াতের একমাত্র চলাচলের রাস্তা বন্ধ হওয়ার পর থেকে তারা স্থানীয় জনপ্রতিনিধি ও সংসদ সদস্যের শরনাপন্ন হয়েও কোন সুফল পাননি।

কৃষক মতিউর রহমানের স্ত্রী ফরিদা বেগম জানান, অবৈধভাবে তার বাড়ি ও জমি দখলের চেষ্টা চালায় ভুমি দস্যু সুলতান উদ্দিন আবু গংরা। ক্রয় ও হেবা সূত্রে আমি মালিক। আমার স্বামী বৃদ্ধ কৃষক মতিউর রহমান ওপরে সম্প্রত্তি প্রকাশ্যে দিবালোকে স্থানীয় বাজারে হামলা চালায় প্রভাবশালীরা গুরুতর আহত অবস্থা ঢাকা মেডিকেল কলেজের ভর্তি ছিলেন। আমাকে ও আমার পরিবারের সদস্যদের মিথ্যা মামলা দিয়ে হয়রানি করে আসছে।

তিনি আরো জানান, সাবেক এস .এ ৩৯ বর্তমান আর. এস ১৫২ দাগে রেকর্ডে ফরিদা বেগমের পিতা মৃত মোক্তার আলীর নামে রয়েছে। তাদের গুন্ডা বাহিনীর হাত থেকে বাঁচার জন্য মৃত আবুল ফজলের ভূঁইয়ার ছেলে কথিত নুরালম ভুইয়া, মৃত মুতি খান ছেলে জাকারিয়া খান, ফজর আলীর ছেলে মাজারুল ও সোলমানের হাত থেকে বাঁচতে ২ বছরে ধরে আমার পরিবারের সদস্যরা পালিয়ে বেড়াচ্ছেন।

ফরিদা বেগম আরো জানান, আমার সারাজীবনের সঞ্চয় আমার বাড়ি। আমার শেষ সম্বল টুকু নেয়ার জন্য স্থানীয় সুলতান উদ্দিন আবু গংয়েরা ভুয়া দলিল সৃজন করে জমি দখলের চেষ্টা করছে। এমনকি তাকে নানাভাবে হয়রানি করছে।

তাদের বিরুদ্ধে আদালতে মামলা করায় ইটের দেয়াল দিয়ে ২ বছর ধরে আমার পরিবারের চলাচলের রাস্তা বন্ধ করে দিয়েছে।

এদিকে সুলতান উদ্দিন আবু জানান, আমি উক্ত সম্পত্তি মৃত মোক্তার আলী বোন, মৃত ফশা বিবি ও মৃত ছখিনা বিবির ওয়ারিশ দের কাছে থেকে ক্রয় মালিক হয়েছেন।

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

%d bloggers like this: