আনিছ হত্যা মামলার বাদীকে হত্যার চেস্টায় মূল আসামী পারভেজ আটক

স্টাফ রিপোর্টার (যুগের চিন্তা ২৪) : নারায়ণগঞ্জের বন্দরে সাবদী এলাকায় চাঞ্চল্যকর হাফেজ আনিছ হত্যার দায়েরকৃত মামলা তুলে না নেয়ায় বাদীকে হত্যার ঘটনায় করা মামলার প্রধান আসামী পারভেজকে ৭ দিনের রিমান্ড চেয়ে আদালতে প্রেরণ করেন। ২২ মে বুধবার সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আশিক ইমামের আদালতে আসামী পারভেজ এর রিমান্ড আবেদন করেন মামলার তদন্ডকারী কর্মকর্তা মদনগঞ্জ ফাঁড়ির ইন্সপেক্টর তারিকুল আলম জুয়েল।

আগামীকাল ২৩ মে বৃহস্পতিবার রিমান্ডের শুনানী দিন ধার্য করা হয়।

মামলার তদন্ডকারী কর্মকর্তা মদনগঞ্জ ফাঁড়ির ইন্সপেক্টর তারিকুল আলম জুয়েল বলেন, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে ২১ মে মঙ্গলবার রাতে বন্দর ঝাউতলা এলাকা পারভেজ এর শশুর বাড়ি থেকে আটক করি। আটকৃত পারভেজ এর বিরুদ্ধে হত্যা,অস্ত্র,মাদক মামলাসহ ৭ টি মামলা রয়েছে।
উল্লেখকৃত, বন্দরে সাবদী আইছতলা এলাকার হাজী আমানউদ্দিন মিয়ার ছেলে হাফেজ আনিছ কে ২ বছর আগে পরিকল্পিত ভাবে বাজারে হত্যা করে। যার প্রেক্ষিতে বন্দর থানায় একটি হত্যা মামলা করে। উক্ত মামলার আসামীরা দীর্ঘদিন জেল হাজত খেটে ৪ মাস পূর্বে জামিনে বের হয়ে আসে। পরে দায়েরকৃত হত্যা মামলা তুলে নেয়ার জন্য বাদী জামানসহ তার পরিবারকে বিভিন্ন ভাবে হত্যা হুকমি দিচ্ছে। তারই জের ধরে সাবদী বাজারে মিলনের মিষ্টির দোকানের সামনে উল্লেখকৃত বিবাদীরা সহ ৭/৮ জন সন্ত্রাসী লাঠিসোঁটা,দেশীয় অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে হত্যার উদ্দেশ্যে হামলা চালিয়ে গুরুতর জখম করে। ১নং বিবাদী পারভেজ হত্যার উদ্দেশ্যে তার হাতে ধারালো চাকু দিয়ে বাম কানের নিচে রক্তাত্ত জখম করে। ২ ও ৩নং বিবাদী একই উদ্দেশ্যে তার হাতে থাকা বাঁশ দিয়ে আঘাত করে মাথা ও ডান কানের লতির নিচে জখম করে। ৪নং বিবাদী হাতে থাকা আঙ্গুলে ব্যবহৃত ৮ আনা স্বনের আংটি নিয়ে যায়। যার মূল্য ২৩ হাজার টাকা। পরে আমার মেজ ভাই মানিক ও ফুফাতো ভাই বাদল খবর পেয়ে ছুটে আসলে তাদের উপর ও লাঠিসোঁটা নিয়ে পিটিয়ে জখম করে। আমাদের ডাক চিৎকারে সাবদী বাজারে আশেপাশের লোকজন ও আমার বড় ভাই জামান খবর পেয়ে ছুটে আসলে উল্লেখকৃত বিবাদীরা অকথ্য ভাষায় গালি-গালাজ করে প্রাণ নাশের হুমকি দিয়ে চলে যায়। তখন আমাকে স্থানীয় ভাবে চিকিৎসা ব্যর্থ হয়ে ভিক্টোরিয়া জেনালের হাসপাতালের উদ্দেশ্যে রওয়ানা হলে রাত ৮ টা ২০ মিনিটের সময় থানার খেয়াঘাটে মেরিন সংলগ্ন উল্লেখকৃত বিবাদীরাসহ অজ্ঞাত আরো ৮/১০ জন সন্ত্রাসীরা হামলা চালায়।
আটকৃত পারভেজ কে বুধবার দুপুরে নারায়ণগঞ্জ আদালতে প্রেরণ করে।

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

%d bloggers like this: